কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী সীমানন্ত দিয়ে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশকালে ভারতীয়সহ আটক ৫ গ্রেপ্তার

অন্যান্য
Spread the love

রুহুল আমিন রুকু, কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীর পাথরডুবি সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশকালে ভারতীয় নাগরিকসহ পাঁচজনকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। পরে বুধবার তাদের অবৈধ অনুপ্রবেশের মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়। লালমনিরহাট ১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লে: কর্নেল এস এম তৌহিদুল আলম পিএসসি জানান, আটক ভারতীয় ও বাংলাদেশী নাগরিকদের নামে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে মামলা দায়ের করে ভূরুঙ্গামারী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এরা হলেন ভারতের নাগরিক- ফিরোজ মলিক (২০), ওয়াদুদ (৩০) ও তাদের সাথে বাংলাদেশী নাগরিকরা হলেন সোহেল (২৭), রিপন মিয়া (৩২) ও সোহেল (১৯)। বিজিবি সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার ভূরুঙ্গামারীর পাথরডুবি ইউনিয়ন সীমান্ত পিলার ৯৬৩/এমপি-এর কাছ থেকে পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে পাথরডুবি এলাকার আনুমানিক ২০০ গজ ভেতরে বাগভান্ডার বিওপির নিয়মিত টহল দল তাদের আটক করে। আটককৃতদের মধ্যে দু’জন ভারতীয় এবং বাকি তিনজন বাংলাদেশী নাগরিক বলে জানা যায়। ভারতীয় নাগরিকরা হলেন ইস্ট দিল্লির গান্দিনগরের গিতা কলোনীর গুরুদুয়ারা এলাকার ইমরান মল্লিকের ছেলে ফিরোজ মলিক (২০)। তার ভারতীয় পরিচয়পত্র নম্বর-৩৫২৫৪৫৩৫৫৯৯০। তিনি জানান, তার বাড়ি বাগেরহাটে। তার বাবা ভারতে থাকেন। তিনি দাদার বাড়িতে বেড়াতে এসেছেন। আরেক ভারতীয় নাগরিক সাউথ দিল্লির সারিতাভির মাদানপুর খাদের জেলে কলোনীর বাসিন্দা আমির আলীর ছেলে মো: ওয়াদুদ (৩০)। তার ভারতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ৪৯৬৯৭৯৬০৪৯২২। তিনি জানান, ছোটবেলায় তার বাবা তাকে ভারতে রেখে এসেছেন। তিনি অসুস্থ বাবাকে দেখার জন্য বাংলাদেশে এসেছেন। তবে কোনো ঠিকানা বলতে পারেননি। বাংলাদেশী নাগরিকরা হলেন মো: সোহেল (২৭), রিপন মিয়া (৩২) ও সোহেল (১৯)। সোহেল সুনামগঞ্জ জেলার পল্লবপুর গ্রামের আ: জলিলের ছেলে। রিপন মিয়া সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার থানার টেয়রাটিলা গ্রামের মৃত আ: করিমের ছেলে ও সোহেল সুনামগঞ্জ থানার কদমতলী গ্রামের চঞ্চল হকের ছেলে। তারা সবাই নির্মাণশ্রমিক হিসেবে ভারতে গিয়েছিল বলে জানান। ভূরুঙ্গামারী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতিয়ার রহমান আটক ব্যক্তিদের থানায় হস্তান্তরের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান বুধবার তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *